All for Joomla The Word of Web Design

ভাগ্যকে আশীর্বাদ করুন দোষারোপ নয়

সুমাইয়া বিনতে রাশিদ
অতিথি লেখিকা, মাই ইসলাম।
ঢাকা সিটি কলেজ।

এটা আমার ভাগ্যে নেই, আমার ভাগ্য খারাপ,  আমি পোড়া কপাল, আমার দোয়া কবুল হয়না, আমার কোন ইচ্ছেই পূরণ হয়না, আমি যা চাই তা পাই না ? ভাগ্যটাই খারাপ আমার, কপালটাই মন্দ আমার! আজকাল এধরণের হতাশামূলক কথা অনেকের মুখেই শোনা যায়।

এধরণের কথা কি ঠিক? বা ভাগ্য কি আদৌ কারো খারারপ হতে পারে? এব্যাপারে কী বলে ইসলাম? আসুন একটু একটু দেখে নেই।

মহান আল্লাহ বলেন,
“যদিও তোমাদের নিকট এটা অপ্রিয়। কিন্তু তোমরা যা অপছন্দ কর হতে পারে তা তোমাদের জন্য কল্যাণকর এবং যা ভালবাস হতে পারে তা তোমাদের জন্য অকল্যাণকর, আর আল্লাহ্‌ জানেন তোমরা জান না” [সূরা বাকারা -২১৬]

“আপনি কি জানেন না যে, আসমান ও যমীনে যা কিছু আছে আল্লাহ্‌ তা জানেন। এসবই তো আছে এক কিতাবে [১]; নিশ্চয় তা আল্লাহ্‌র নিকট অতি সহজ”। [সূরা হজ্জ -৭০]

“আর তোমাদেরকে যা কিছু দেয়া হয়েছে তা তো দুনিয়ার জীবনের ভোগ ও শোভামাত্র। আর যা আল্লাহ্‌র কাছে আছে তা উত্তম ও স্থায়ী। তোমরা কি অনুধাবন করবে না?” [সূরা কাসাস -৬০]
আপনার পালনকর্তা যা ইচ্ছা সৃষ্টি করেন এবং (যা ইচ্ছা) মনোনীত করেন।” [সূরা কাসাস, আয়াত: ৬৮]

“এবং আল্লাহ যা ইচ্ছা সেটাই করেন” [সূরা ইব্রাহিম, আয়াত: ২৭]

“তোমার রব যদি ইচ্ছা করত, তবে তারা তা করত না” [সূরা আল-আনআম, আয়াত: ১১২]

“আল্লাহ সবকিছুর স্রষ্টা এবং তিনি সবকিছুর তত্ত্বাবধায়ক।” [সূরা আয-যুমার, আয়াত: ৬২]

মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন,
عن أبي هريرة -رضي الله عنه- عن النبي صلى الله عليه وسلم قال: «لا يأت ابن آدم النذر بشيء لم يكن قد قدرته, ولكن يلقيه القدر وقد قدرته له أستخرج به من البخيل » . ( خ, م ) صحيح

আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, “বনি আদমের নিকট মান্নত কোন জিনিস নিয়ে আসে না যা আমি তার জন্য নির্ধারণ করি নি, কিন্তু তাকদির তাকে পেয়ে বসে [১], আমি তার জন্য নির্ধারণ করে রেখেছি এর দ্বারা কৃপণ থেকে সম্পদ বের করব”। [বুখারি ও মুসলিম]

উসামাহ ইবনু যায়দ রাঃ হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, একবার আমি নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর নিকটে ছিলাম। তাঁর সঙ্গে সা‘দ ইবনু ‘উবাদাহ, ‘উবাই ইব্ন কা‘ব ও মু‘আয ইবনু জাবালও ছিলেন। এমন সময় রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের কোন এক কন্যার পাঠানো এক লোক খবর নিয়ে এলো যে, তাঁর পুত্র সন্তান মরণাপন্ন। তখন তিনি লোকটির মারফত কন্যাকে বলে পাঠালেন যে, আল্লাহর জন্যই- যা তিনি নিয়ে যান। আর আল্লাহর জন্যই- যা তিনি দান করেন। প্রত্যেকের জন্য একটি সময় নির্ধারিত রয়েছে। কাজেই সে যেন ধৈর্য ধারণ করে এবং সাওয়াবের আশা করে। (বুখারী -৬৬০২, আধুনিক প্রকাশনী- ৬১৪১, ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬১৪৯)।

আবূ সা‘ঈদ খুদরী রাঃ হতে বর্ণিত, তিনি একবার নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর নিকট উপবিষ্ট ছিলেন। এমন সময় আনসারদের এক লোক এসে বলল, হে আল্লাহর রাসূল! আমরা তো বাঁদীদের সঙ্গে সংগত হই অথচ মালকে ভালবাসি। কাজেই ‘আযল’র ব্যাপারে আপনার অভিমত কী? রাসূলূল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেনঃ তোমরা কি এ কাজ কর? তোমাদের জন্য এটা করা আর না করা দুটোই সমান। কেননা, যে কোন জীবন যা পয়দা হওয়াকে আল্লাহ্ লিখে দিয়েছেন তা পয়দা হবেই।(বুখারী – ৬৬০৩, আধুনিক প্রকাশনী- ৬১৪, ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬১৫০)।

বুঝা যায় সব কিছু আল্লাহর ইচ্ছায় হয়। তিনি না চাইলে কোন কিছু সম্ভব নয়। যা আমরা চাই হয়ত তা আমাদের জন্য কল্যাণকর ন আর যা চাই না তাতেই হয়তো কল্যাণ রয়েছে! আল্লাহ জানেন আমরা জানি না। ভাগ্য খারাপ তা বার বার না বলে এটা পরিক্ষা মনে করে আল্লাহর কাছে দোয়া করুন। সৃষ্টির আদিকাল থেকেই নবী -রাসূলগন সকলেই পরিক্ষার সম্মুখীন হয়েছেন কিন্তু তারা কেউ ধৈর্য্যহারা হননি বরং আল্লাহর উপর তাওয়াক্কুল করেছেন।

ভাগ্যকে দোষ না দিয়ে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া করুন হয়ত আপনার এই ইচ্ছা আপনার কোন বিপদ বয়ে আনত। মনে রাখবেন, সকল দোয়া কবুল হয়। যদি না হয় মনে করবেন এর চেয়ে উত্তম কিছু রেখেছেন আপনার জন্য, বা এর দ্বারা কোন বিপদ কেটেছে, বা এই দোয়ার বিনিময়ে কিয়ামতে উত্তম উপহার রেখেছেন। আপনার দোয়া বিফলে যাবে না। তাকদিরে বিশ্বাস রাখুন। আল্লাহ আপনার চেয়ে বেশি জানেন কোনটা আপনার জন্য উত্তম।

—————————————————————————————————————————————-
[১] অর্থাৎ কখনও কখনও মানুষ মান্নত দ্বারা কোন জিনিস পায়, এটা আসলে মান্নতের মাধ্যমে পাওয়া নয়; বরং এটাই আমি তার তাকদীরে লিখেছি। কিন্তু সে যেহেতু আল্লাহর জন্য কিছু দিতে চায় না, কৃপণতা করে, তখন সে মনে মান্নতের মাধ্যমে পাওয়া যাবে, আর এভাবে মান্নত করার কারণে আল্লাহ তা‘আলা এর মাধ্যমে কিছু জিনিস তার থেকে বের করে আনেন।
সহিহ হাদিসে কুদসি, হাদিস নং ১৬০, হাদিসের মান: সহিহ হাদিস।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

শিরোনাম:
  ❖   পরকালের জন্য হোক কিছু সঞ্চয়   ❖   কোনো এক ক্ষণে   ❖   ঠিকানার শেষ প্রান্তে   ❖   অন্যরকম বিয়ে   ❖   ভাগ্যকে আশীর্বাদ করুন দোষারোপ নয়   ❖   সত্যের পথে   ❖   কওমি সনদ, হাইআতুল উলইয়া, বেফাক ও অন্যান্যদের দলাদলি: একটি পর্যালোচনা   ❖   ২০০১ সাল থেকে এ পর্যন্ত যুদ্ধের পেছনে আমেরিকার খরচ ৫.৬ ট্রিলয়ন ডলার!   ❖   ভয়ঙ্কর সামাজিক ব্যাধি পরকীয়া   ❖   আরবের দুম্বা সমাচার